আওয়ামী লীগের সুনাম এবং ঐতিহ্যকে সমুন্নত রাখতে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

অনলাইন ডেস্ক:  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলের সুনাম এবং ঐতিহ্য সমুন্নত রাখার আহবান জানিয়ে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, জনগণের প্রতি দলটির দায়িত্ব রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ গণমানুষের একটি দল এবং তাদের প্রতি এর একটি দায়বদ্ধতা রয়েছে। কাজেই, আপনাদের সংগঠনের সুনাম এবং ঐতিহ্য ধরে রাখতে হবে এবং এমনভাবে কাজ করতে হবে যাতে এর ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত না হয়।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নবম বারের মতো আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগ এবং এর সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা তাকে শুভেচ্ছা জানাতে এলে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের কাউন্সিল অধিবেশনে শেখ হাসিনা এই উপমহাদেশের অন্যতম বৃহৎ এবং ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক সংগঠন আওয়ামী লীগের টানা নবম বারের মতো সভাপতি নির্বাচিত হন।

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, যারা উড়ে এসে জুড়ে বসে তাদের দেশ ও জনগণের প্রতি কোন দায়িত্ব থাকেনা।
গত নির্বাচনে দেশের জনগণ দলের প্রতি যে আস্থা ও বিশ্বাস দেখিয়েছিল তা সমুন্নত রাখার জন্যও প্রধানমন্ত্রী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের প্রতি নির্দেশনা দেন।

তিনি বলেন, ‘আপনাদেরকে জনগণের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করতে হবে এবং দলের ভাবমূর্তিকে ধরে রাখতে হবে।’ তিনি নিজেদের মধ্যে সকল ভেদাভেদ ভূলে তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত দলকে শক্তিশালী করারও আহ্বান জানান।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করার জন্য আপনাদের ত্যাগের মানসিকতা নিয়ে কাজ করতে হবে। দল শক্তিশালী হলে যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করা সম্ভব।’

প্রধানমন্ত্রী এ সময় আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় কাউন্সিল সফল এবং সুশৃংখলভাবে সম্পন্ন করায় সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ এবং অভিনন্দন জানান।শেখ হাসিনা তাঁকে দলের সভাপতি পদে পুনঃনির্বাচিত করায় কাউন্সিলরগণকেও শুভেচ্ছা জানান।যেসব জেলায় এখনও সম্মেলন হয়নি তাদের তা দ্রুত সম্পন্ন করাতেও প্রধানমন্ত্রী তাগিদ দেন।

এ প্রসঙ্গে তিনি সতর্ক করে দেন যে, যদি তারা যথাসময়ে কাউন্সিল অনুষ্ঠানে ব্যর্থ হন তবে তাদের কমিটি বিলুপ্ত হয়ে যাবে।প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের বঙ্গবন্ধুর লেখা ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ ও ‘কারাগারের রোজনামচা’ এবং ‘সিক্রেট ডকুমেন্ট অব ইন্টেলিজেন্স ব্রাঞ্চ অন ফাদার অব দি নেশন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’- বইগুলো পড়ার আহবান জানান।

তিনি বলেন, ‘আপনারা যদি এই ঐতিহাসিক বইগুলো যথাযথভাবে এবং মনোযোগের সঙ্গে পড়েন তাহলে অনেক কিছু জানতে পারবেন।’

এর আগে, জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ও ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া নবম বারের মতো আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় শেখ হাসিনাকে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।সূত্র : বাসস

বাংলাদেশ বুলেটিন/এসকে