চাকরি করব না, চাকরি দেব এই চিন্তা থাকতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক: যুবসমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘চাকরি করব না, চাকরি দেব’ যুবসমাজের এই চিন্তা থাকতে হবে। আজ যে ২৭ জন যুবককে পুরস্কার দিলাম, তারা সবাই অনেকের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি করেছে। এভাবে যুবকরা আত্মকর্মী হলে আগামীতে বাংলাদেশে কেউ বেকার থাকবে না। যুবকরাই হবে বাংলাদেশের কর্ণধার।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘মুজিববর্ষে কেউ বেকার থাকবে না। এজন্য সবার কর্মসংস্থান তৈরিতে সরকার বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে।’ শুধু চাকরি না করলেই বেকার যুব সমাজকে এমন ভাবনা থেকে সরে এসে স্বপ্রণোদিত হয়ে উদ্যোক্তা হতে আহ্বান করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘চাকরি না করলেই বেকার, এ মানসিকতা বদলাতে হবে। আজ দেশের যুব সমাজকে ভাবতে হবে, আমরা চাকরি করব কেন! আরও ১০ জনকে চাকরি দেব। যারা স্বপ্রণোদিত হয়ে উদ্যোক্তা হবেন, সরকার তাদের সহায়তা দেবে।’

আজ বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের শাপলা হলে আত্মকর্মী ও যুব সংগঠকদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

সরকার তরুণদের জন্য প্রশিক্ষণ ও ঋণদানসহ বিভিন্ন সহায়তার ব্যবস্থা করেছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের কল্যাণে অনেক ফ্রিল্যান্সারসহ বিভিন্ন পেশাজীবী গড়ে উঠেছেন। অনলাইনে আয়ের সুযোগ সৃষ্টি করে দিতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। বিনা জামানতে ঋণের ব্যবস্থাও করা হচ্ছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘যুবকদের স্টার্টআপ প্রোগ্রামকে উৎসাহ দিতে সরকার ঋণের ব্যবস্থা রেখেছে। আমরা ফান্ড গঠন করে দিয়েছি। যুবকরা সেখান থেকে সহজ শর্তে ঋণ পাবে।

এ সময় সরকার বিদেশে দক্ষ কর্মী পাঠাতে বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে বলে জানান পধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘বিদেশে কর্মী পাঠানোর ক্ষেত্রে আমরা বিভিন্ন প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করছি। কারণ দক্ষ কর্মী পাঠালে মূল্যায়ন ভালো হয়।

বাংলাদেশেকে ক্ষুধামুক্ত ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য যুব সমাজকে দৃঢ়ভাবে প্রতিজ্ঞা নিতে ও তা বাস্তবায়নের আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

বাংলাদেশ বুলেটিন/এস কে