জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বিদেশ সফর নিরুৎসাহিত করছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক : প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস যেভাবে দেশে দেশে ছড়িয়ে পড়ছে তাতে পুরো বিশ্ব পড়েছে হুমকির মুখে। এরইমধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এই সময়ে একান্ত জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঢাকার কর্মকর্তাদের দেশের বাইরে যেতে নিরুৎসাহিত করছেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, করোনাভাইরাস নিয়ে খুব সতর্ক অবস্থানে আছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। প্রতিদিনই এই ভাইরাসের হালনাগাদ তথ্য জানতে তিনি দেশের বাইরের মিশনগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন।

করোনা প্রতিরোধের অংশ হিসেবে ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহ থেকে শুরু করে আগামী এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একাধিক কর্মকর্তার বিদেশ সফরে অনুমতি দেননি পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

একাধিক সূত্রে জানা গেছে, বাতিল হওয়া বিদেশ সফরের বেশিরভাগের ট্রানজিট রুট ছিল কুয়ালালামপুর এবং সিঙ্গাপুর। এই দুইটি স্থান করোনা আক্রান্ত হওয়ায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী সতর্কতার অংশ হিসেবে কর্মকর্তাদের এই সময়ে সফরের অনুমতি দেননি।

ইতোমধ্যে সিঙ্গাপুর, সংযুক্ত আরব আমিরাতে পাঁচজন বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তারা সংশ্লিষ্ট দেশগুলোতে চিকিৎসাসেবা নিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, গত ডিসেম্বরে চীনের উহানে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর এখন পর্যন্ত ২৬টি দেশ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। সারাবিশ্বে অসুস্থ হয়েছে ৮০ হাজারের বেশি মানুষ, মারা গেছেন প্রায় ৩ হাজার মানুষ।

বাংলাদেশ বুলেটিন/এমআর