পাঁচশ কোটির ঘরে ডিএসইর লেনদেন

অনলাইন ডেস্ক: পতনের ধারা কাটিয়ে কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় ফেরার ইঙ্গিত দিচ্ছে দেশের শেয়ারবাজার। কয়েকদিন ধরেই মূল্য সূচকের উত্থানের পাশাপাশি বেড়েছে লেনদেনের গতি। এরই ধারাবাহিকতায় প্রায় দুই মাস পর মঙ্গলবার প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) পাঁচশ কোটি টাকার ওপরে লেনদেন হয়েছে।

ডিএসইর পাশাপাশি লেনদেনের গতি বেড়েছে অপর শেয়ারবাজর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই)। লেনদেন বাড়ার পাশাপাশি দুই বাজারেই বেড়েছে প্রধান মূল্য সূচক। সেই সঙ্গে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। এদিন ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১৮৪টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৩৩টির। আর ৩৩টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ায় ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ২৮ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৭২২ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এক্ষেত্রে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচকে থাকা বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দরপতন হয়েছে। এতে ডিএসই-৩০ সূচকের পতন হয়েছে কিছুটা। দিনের লেনদেন শেষে ডিএসই-৩০ সূচক ১ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৬৩৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্‌ সূচক ১ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৭৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

এদিকে দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫৬০ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ৪৪৪ কোটি ৭ লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ১১৬ কোটি ২৯ লাখ টাকা। লেনদেনের পরিমাণ শুধু আগের কার্যদিবসের তুলনায় বাড়েনি, প্রায় দুই মাস বা গত ৩০ সেপ্টেম্বরের পর ডিএসইতে সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে। ৩০ সেপ্টেম্বর বাজারটিতে ৫৯৫ কোটি ৭৮ লাখ টাকার লেনদেন হয়। এরপর গত দুই মাসে ডিএসইর লেনদেন আর পাঁচশ কোটি টাকার ঘরে পৌঁছায়নি।

লেনদেনে বড় ধরনের উত্থানের দিনে ডিএসইতে টাকার পরিমাণে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ন্যাশনাল টিউবসের শেয়ার। কোম্পানিটির ১৩ কোটি ৪৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা সিটি ব্যাংকের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১২ কোটি ৭৩ লাখ টাকার। ১২ কোটি ৭০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে কাট্টালী টেক্সটাইল।

এছাড়া লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, বিকন ফার্মাসিউটিক্যাল, প্রিমিয়ার ব্যাংক, সোনার বাংলা ইন্সু্রেন্স, মেঘনা পেট্রোলিয়াম, ডাচ-বাংলা ব্যাংক এবং এসকে ট্রিমস।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৫৮ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৩১৪ পয়েন্টে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ২০ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেয়া ২৬৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ১৪৯টির, কমেছে ৮৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩১টির।

বাংলাদেশ বুলেটিন/জিএম