-ফাইল ছবি

যুক্তরাষ্ট্রে নিরাপত্তা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে উবার

অনলাইন ডেস্ক: গতকাল নিরাপত্তা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে উবার। প্রতিবেদনে জানা যায় ২০১৭ এবং ২০১৮ সালে ৫ হাজার ৯৮১ টি যৌন নিপীড়নের অভিযোগ পেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। যার মধ্যে ৪৬৪ টি ধর্ষণের রিপোর্ট ছিল। এবং নির্যাতনের শিকার হয়ে ১৯ জন মারা যায়। ২০১৮ সালে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ ১৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানিয়েছে উবার।

নিজেদের সুরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার করার প্রতিশ্রুতি রক্ষায় এ রিপোর্টটি প্রকাশ করলো প্রতিষ্ঠানটি। বিশ্বব্যাপী নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে তদন্তের মুখে পড়ে উবার এক বছর আগে সিএনএন উবারের নিরাপত্তা নিয়ে তদন্ত করে। নিরাপত্তা ইস্যুতে লন্ডনে লাইসেন্সও হারিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রতিবেদটিতে উবার বলছে শতকরা ৯৯.৯ টি রাইডে নির্যাতনের কোন ঘটনা ঘটেনি। প্রতিবেদনে বলা হয় ধর্ষণের স্বীকার শতকরা ৯২জন যাত্রী এবং শতকরা ৮জন চালক। নারী এবং মহিলা-সনাক্তকারী ব্যক্তিরা প্রায় ৮০% ভুক্তভোগীদের শতকরা ৮৯ জনই নারী এবং শতকরা ৮ চন পুরুয়। ৮৪ পৃষ্ঠার প্রতিবেদনটিতে ২০১৭ এবং ২০১৮ সালের উবারের তথ্যের এবং ৩১ অক্টোবর,২০১৯ এর আগের ঘটনাগুলো অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

উবারের প্রধান আইনি কর্মকর্তা টনি ওয়েস্ট বলেন, নিরাপত্তা বিষয়ে সমস্যাগুলো নিয়ে স্বেচ্ছায় রিপোর্ট প্রকাশ করা সহজ নয়। তিনি আরও বলেন, নেতিবাচক শিরোনাম এবং জনসম্মুখে সমালোচনা ভয়ে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠান যৌন সহিংসতার মতো বিষয় নিয়ে কথা বলেন না। কিন্তু আমরা মনে করি এখন সময় এসেছে নতুন কিছু করার।

বাংলাদেশ বুলেটিন/জিএম