করোনায় চরম ঝুঁকিতে ব্যাংকাররা, আক্রান্ত ৫৫ মৃত্যু ৪

বুলেটিন প্রতিবেদক : লেনদেনের সময় সীমিত হওয়ায় এক সঙ্গে ব্যাংকগুলোতে ভিড় করছে গ্রাহক। অনেক জায়গায় স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা অসম্ভব হয়ে পড়ছে। ফলে করোনায় সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকিতে পড়েছে ব্যাংকাররা। অনেকে আক্রান্তও হচ্ছেন।

এখন পর্যন্ত প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন ৫৫ জন ব্যাংক কর্মী। আর প্রাণ হারিয়েছেন চারজন। সংশ্লিষ্ট ব্যাংক সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দ্রুত কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। তা না হলে আগামীতে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়বে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মহামারি করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংকের ৩০ কর্মকর্তা। এরপরই রয়েছে বেসরকারি ইসলামী ব্যাংকের ১০ জন। এছাড়া অগ্রণী ব্যাংকের ৩ জন, রূপালী ব্যাংকের ৩ জন, সাউথইস্ট ব্যাংকের ৩ জন, সিটি ব্যাংকের ২ জন, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের ২ জন, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ১ জন ও মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ১ জন।

এখন পর্যন্ত সবমিলিয়ে ৫৫ জন ব্যাংক কর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে। আক্রান্ত কর্মকর্তাদের মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ৪ জন। এর মধ্যে রয়েছেন সোনালী ব্যাংকের ১ জন, রূপালী ব্যাংকের ১ জন ও দ্য সিটি ব্যাংকের ২ কর্মকর্তা।

মৃতদের মধ্যে গত ১৭ মে রাতে রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার (পিও) মাহবুব এলাহী কুমিল্লায় নিজ বাড়িতে মারা যান। এর আগে ১৫ মে রাষ্ট্রায়ত্ত রূপালী ব্যাংকের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) সহিদুল ইসলাম খান রাজধানীর কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। মৃত্যুকা‌লে তার বয়স হ‌য়ে‌ছিল ৪৯ বছর। এর আ‌গে দ্য সিটি ব্যাংকের আরও দু’জন মারা যান।

তা‌দের ম‌ধ্যে গত মঙ্গলবার (১২ মে) রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আবু সাঈদ না‌মের এক কর্মকর্তার মৃত্যু হয়। তিনি ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে সেন্ট্রাল ক্লিয়ারিং বিভাগের অ্যাসিসট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে কর্মরত ছি‌লেন। তার আগে ২৬ এপ্রিল ব্যাংকটির মানবসম্পদ বিভাগের মুজতবা শাহরিয়ার নামের এক কর্মকর্তা মুগদা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এর বাইরে করোনা লক্ষণ নিয়ে চট্টগ্রামের আরও ২ ব্যাংক কর্মকর্তা মারা গেছেন বলে জানা গেছে।

এমআইপি/প্রিন্স