বন্দুকযুদ্ধে জকির গ্রুপের ২ সদস্য নিহত

অনলাইন ডেস্ক: কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের মেরিন ড্রাইভ সড়কের টেকনাফ অংশে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুই যুবক নিহত হয়েছেন। যারা রোহিঙ্গা ডাকাত জকির বাহিনীর সদস্য বলে দাবি র‌্যাবের।বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে টেকনাফের শাপলাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- কক্সবাজারের রামুর পূর্ব উমখালীর আবদুস শুক্কুরের ছেলে সাইফুল ইসলাম সোহেল ওরফে ডিবি সাইফুল এবং টেকনাফের হ্নীলার লেদা পশ্চিম পাড়ার নুর আহমদের ছেলে নুর কামাল ওরফে সোনাইয়া ডাকাত। সাইফুল রোহিঙ্গা ডাকাত জকির গ্রুপের সেকেন্ড ইন কমান্ড এবং দুজনই গ্রুপে সক্রিয় সদস্য বলে দাবি পুলিশের এলিট ফোর্সটির।

র‌্যাব-১৫ সিপিসি-১ টেকনাফ ক্যাম্পের ইনচার্জ লেফটেন্যান্ট মির্জা শাহেদ মাহতাব বলেন, টেকনাফের বাহারছড়া মেরিন ড্রাইভ সংলগ্ন সমুদ্রসৈকত এলাকায় কুখ্যাত ডাকাত জকির গ্রুপের সদস্যরা সংঘবদ্ধভাবে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে খবর পাওয়া যায়। পরে রাত সাড়ে ১২টার দিকে র‌্যাবের একটি দল ওই এলাকায় অভিযান চালায়। অস্ত্রধারী ডাকাতরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করে। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। বেশ কিছুক্ষণ গুলিবিনিময়ের পর ডাকাতদলের সদস্যরা পালিয়ে যায়।

পরে ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, ছয় রাউন্ড গুলি, একটি একনলা বন্দুক ও পাঁচ রাউন্ড তাজা কার্তুজসহ নুর কামাল ও সাইফুলকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাদের উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। লাশ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ বুলেটিন/এস কে