ভোটারের কম উপস্থিতি ইসির দায় নয়: সিইসি

অনলাইন ডেস্ক: প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ কে এম নূরুল হুদা মন্তব্য করেছেন নির্বাচনে ভোটারের উপস্থিতি কম হওয়ার দায় নির্বাচন কমিশনের নয়।জাতীয় ভোটার দিবস উপলক্ষে সোমবার সকাল আটটায় রাজধানীর মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে আয়োজিত এক র‌্যালিতে অংশ নিয়ে তিনি এই মন্তব্য করেন।

২০১৪ সালে অধিকাংশ দলের বর্জনের মধ্যে দশম সংসদ নির্বাচন হয়ে যাওয়ার পর থেকে বিভিন্ন নির্বাচনে ভোটের হার কমতে থাকে। যাকে গণতন্ত্রের জন্য ‘অশনি সংকেত’ বলে মনে করেন অনেকে। এরপর থেকে বিভিন্ন নির্বাচনে ভোটারের উপস্থিতি কমতে থাকে।কে এম নূরুল হুদা নির্বাচন কমিশনে যোগ দেওয়ার দুই বছরের মাথায় একাদশ সংসদ নির্বাচনে ভোটের হার ছিল ৪০ শতাংশ, তা নিয়েও রয়েছে অনেক অভিযোগ।

গত ১৩ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া চট্টগ্রাম-৮ আসনে উপনির্বাচনে মাত্র ২২ শতাংশ ভোটগ্রহণ ইসির মাথায় চিন্তার ভাঁজ ফেলেছিল। তারপরেও তাদের জন্য উৎসাহের উপলক্ষ ছিল তার আগে বিভিন্ন পৌরসভায় ইভিএমে ৮০ শতাংশের উপরে ভোটের হার।

কয়েকটি নির্বাচনে ভোটারদের অনাগ্রহের প্রেক্ষাপটে গত ১ ফেব্রুয়ারি অনেক বিতর্কের মধ্যেও ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট নেয় ইসি। ইভিএমের প্রতি আগ্রহী হয়ে ভোটাররা কেন্দ্রে আসবে বলে ইসি আশায় থাকলেও তাদের সেই আশার গুঁড়েও বালি পড়ে। ভোটের হারে উন্নতি না হলেও নির্বাচন কমিশনের তৎপরতায় কোনো ঘাটতি ছিল না বলে জানিয়েছিলেন সিইসি কে এম নূরুল হুদা।

সোমবার ভোটার দিবস উপলক্ষে আয়োজিত র‌্যালিতে অংশ নিয়ে সিইসি বলেন, নির্বাচনে ভোটারের উপস্থিতি কম হওয়ার দায় নির্বাচন কমিশনের নয়। সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজন ও নির্বাচনের নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করাই নির্বাচন কমিশনের কাজ।

নির্বাচন কমিশনের উপর ভোটারদের আস্থা আছে কি না-তা নির্দিষ্ট করে বলা যাবে না উল্লেখ করে নূরুল হুদা বলেন, সুষ্ঠু ভোটের পরিবেশ তৈরি করা কমিশনের কাজ এবং সেই কাজ কমিশন করে যাচ্ছে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার আরও বলেন, ‘ভবিষ্যতেও প্রচার প্রচারণায় পোস্টার ও মাইক ব্যবহার নির্দিষ্ট করে দেয়া হবে।’

মানিক মিয়া অ্যাভিনিউ থেকে বের হওয়া র‌্যালিটি বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের সামনে গিয়ে শেষ হবে। এরপর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বিকাল তিনটায় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়কমন্ত্রী মো. আনিসুল হকের।এছাড়া প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা, নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম, নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম, নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী (অব) উপস্থিত থাকবেন।

বাংলাদেশ বুলেটিন/এস কে