ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১ ই-পেপার

যমুনা চরে বাদামের বাম্পার ফলন

মোঃ রাসেল সরকার, শাহজাদপুর ( সিরাজগঞ্জ):

২০২১-০৬-০৯ ২০:১৯:১১ /

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার যমুনা চরের ৩ টি ইউনিয়নসহ আরো মোট ছয়টি ইউনিয়নের প্রায় ২৫৫ হেক্টর জমিতে চলতি বছর বাদামের বাম্পার ফলন হয়েছে। ভালো দাম পাওয়ায় বাদাম চাষীদের মুখে হাসি ফুটেছে।

বাদাম চাষ করা ইউনিয়নগুলো হলো-কৈজুরি, জালালপুর, সোনাতনী, গালা, রুপবাটি ও পোতাজিয়া। 

জানা যায়, এ বছর প্রতি হেক্টর জমিতে এক দশমিক ৮ মেট্রিক টন করে বাদামের ফলন হয়েছে। প্রতি মণ বাদাম বাজারে দুই হাজার ২০০ থেকে তিন হাজার টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। অনেক কৃষকের জমি থেকেই বাদাম বিক্রি হয়ে যাচ্ছে।অনেকে আবার পরে বিক্রির জন্য মজুত করে রাখছেন। এতে তারা আরও বেশি লাভবান হবেন বলে মনে করছেন। আগাম বন্যায় যমুনা তীরবর্তী এই অঞ্চলে চলতি বছরে এক থেকে দেড় হেক্টর জমির বাদাম ডুবে গেলেও ভালো দাম পাওয়ায় এখন তা পুষিয়ে নেয়া সম্ভব হচ্ছে। 

সরেজমিন যমুনা তীরবর্তী বেনুটিয়া, কাশিপুর, জগতলা, ভেড়াখোলা, দেওয়ানতারটিয়া এলাকায় কিষাণ-কিষাণীদের গাছ থেকে বাদাম মাড়াই করতে দেখা গেছে। 

বেনুটিয়া গ্রামের কৃষক রহম আলী জানান, চরে এবছর বেশি বাদাম চাষ হয়েছে। আগে বোনা বাদাম বেশি ভালো হয়েছে। পরে বোনা বাদামের উৎপাদন কম হলেও দাম ভালো হওয়ায় কৃষকদের লোকসান হয়নি। 

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুস সালাম বলেন, আবহাওয়া অনুকুলে থাকা ও পোকার আক্রমণ কম হওয়ায় ১৯টি চরে বাদামের বাম্পার ফলন হয়েছে। দামও ভালো পাওয়া যাচ্ছে। আগামী বছর বাদামের আবাদ আরও বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনে।

বাবু/জেআর

এ জাতীয় আরো খবর

ঢাকা-কুয়াকাটার দূরত্ব কমাবে লেবুখালী সেতু

ঢাকা-কুয়াকাটার দূরত্ব কমাবে লেবুখালী সেতু

আলো ছড়াচ্ছে মজিবুর রহমান স্মৃতি গ্রন্থাগার

আলো ছড়াচ্ছে মজিবুর রহমান স্মৃতি গ্রন্থাগার

মধুর বাঁশির সুর যেন হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালাকেও হার মানায়

মধুর বাঁশির সুর যেন হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালাকেও হার মানায়

যমুনা চরে বাদামের বাম্পার ফলন

যমুনা চরে বাদামের বাম্পার ফলন

আত্মরক্ষার তাগিদেই নারীদের ক্যারাটে শেখা উচিত : মৌসুমী মজুমদার

আত্মরক্ষার তাগিদেই নারীদের ক্যারাটে শেখা উচিত : মৌসুমী মজুমদার

হারিয়ে যেতে বসেছে রসালো ফল কালো জাম

হারিয়ে যেতে বসেছে রসালো ফল কালো জাম