ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

বহদ্দারহাট বাজারে ওজনে কারচুপি; প্রতিবাদ করলে হামলা-মামলার অভিযোগ

চট্টগ্রাম ব্যুরো :

২০২১-০৭-০৯ ২৩:৫১:৪৭ /

চট্টগ্রাম নগরীর বহদ্দারহাট কাঁচা বাজারে আজ বিকেলে স্থানীয় এক বাসিন্দার ক্রয়কৃত মুরগিতে ওজনে কারচুপির হওয়ার প্রতিবাদ করায় তাকে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। 

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুরো এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তবে সংশ্লিষ্ট চাঁন্দগাও থানার ওসি বলছে, সে সময় বাজার বন্ধ ছিলো। তাই আজ তেমন কোন ঘটনাই ঘটেনি। কিন্তু প্রতিবেদকের হাতে আসা ভিডিও ফুটেজ বলছে ঘটনার পরেও বাজার খোলা ছিলো। এছাড়া ভূক্তভোগি ক্রেতা নিজে এ বিষয়ে অভিযোগ জানাতে সিটি মেয়রের বাসায় গেলে থানার পুলিশ উল্টো তাদেরকে মামলার ভয় দেখিয়ে সেখান থেকে তাড়িয়ে দেয় বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী ঘাসিয়া পাড়ার বাসিন্দা সুমন বলেন, আমার মরহুম বাবার ফাতেহা দেয়ার জন্যে আমি বিকেলে বহদ্দারহাট বাজার থেকে একটি বয়লার ও দুটি সোনালী মুরগী ক্রয় করি। মুরগিগুলো বাসায় নেয়ার পথে আমার এক চাচাসহ মুরগির ওজন নিয়ে সন্দেহ হলে আমরা বাসার সামনের একটি মুদির দোকানে মুরগি তিনটি ওজন করে ওজনে কম পাই। আমরা তাৎক্ষণিক মুরগিগুলো নিয়ে বাজারে এসে সেই দোকানদারকে ওজনে কম দেয়ার বিষয়ে অভিযোগ জানালে দোকানদার ও কর্মচারীরা আমাকে ও আমার চাচাকে শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করে। পরে এলাকায় ফিরে পাড়ার বড় ভাইদের বিষয়টি জানাই। যেহেতু বাজারের ইজাদার চসিক নিযুক্ত তাই চসিক মেয়রকে জানাতে তারাসহ আমরা মেয়র রেজাউল করিম ভাইয়ের বাসায় অভিযোগ জানাতে যাই। কিন্তু সেখানে থানার পুলিশ উল্টো আমাদেরকে মামলা দেয়ার হুমকি-ধমকি দেয়।

এ বক্তব্যের সত্যতা জানতে প্রতিবেদক ভূক্তভোগীর বাসার সামনের সে মুদি দোকানির সাথে মুঠোফোনে কথা বলেন। মুদি দোকানদার জানান, সুমন তিনটি মুরগি তার দোকানে ওজন করিয়েছিলেন। তিনি যে ওজনে সেগুলো কিনেছে বলে জানিয়েছিলেন ওজন করার পর সেই ওজনের চেয়ে কম ওজন পেয়েছি।

জানা গেছে, এ ঘটনার প্রতিবাদে সন্ধ্যায় পূর্ব ষোলশহর এলাকার বাসিন্দারা মিছিল বের করেন। পরে তারা মেয়রের বাসভবনে যান বিচার নিয়ে। প্রত্যক্ষদর্শী একাধিক ব্যক্তি জানিয়েছেন, মিছিল থেকে এলাকাবাসী বহদ্দারহাটের চাঁদাবাজির হোতা জনৈক বদিউল, ফ্রুট সোহেলসহ বাকীদের আটকের দাবি জানিয়েছেন। এসময় পুলিশের পক্ষপাতিত্বের বিরুদ্ধেও স্লোগান দেন এলাকাবাসী। 

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, বহদ্দারহাট কাঁচাবাজারে মুরগি থেকে শুরু করে সবকিছুতে ওজনে কারচুপির বিশাল ফাঁদ চলে আসছে দীর্ঘদিন। এসব ঘটনায় ক্রেতারা প্রতিবাদ করলে উল্টো নাজেহাল হন। অনেক ক্ষেত্রে হামলা থেকে মামলার শিকার হন। ক’দিন আগেও মোজাম্মেল নামে এক মুরগি দোকানীকে ওজনে চুরির ঘটনায় পুলিশে দেয় ক্রেতারা। তাকে বহদ্দারহাট ফাঁড়িতে আটকে রেখে পরে ৮০ হাজার টাকায় ছেড়ে দেন ফাঁড়ি ইনচার্জ এস আই অধীর চৌধুরী। 

পুরো বহদ্দারহাট এলাকায় এসব অনিয়ম, চাঁদাবাজিকে কেন্দ্র করে সক্রিয় রয়েছে একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ ও রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় কয়েকজন ব্যক্তি। তারা থানা পুলিশকে নিয়মিত মাসোহারা দেওয়ায় পুলিশ সবসময় তাদের পক্ষ নেন বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। 

কিছুদিন আগেও এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় স্থানীয় জাবেদ নামে এক যুবককে সাজানো অপহরণ মামলার আসামি করে পুলিশ। চান্দগাঁও থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমানের আশ্রয়-প্রশ্রয়ে বহদ্দারহাট কেন্দ্রিক চাঁদাবাজিসহ অপরাধীরা সক্রিয় বলে অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।

স্থানীয় পূর্ব ষোলশহর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আশরাফুল আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, "আজ মুরগির ওজন কারচুপি নিয়ে এলাকার ছেলেদের সাথে কিছু হয়েছে বলে আমিও শুনেছি। আসলে বাজারটিতে বিক্রেতাদের দুর্ব্যবহারের অভিযোগ আগেও ছিলো। বিশেষ করে মাংস আর মাছ মুরগির দোকান নিয়ে প্রায়ই অভিযোগ পাই। তবে যেহেতু চসিক ইজারাদারের মাধ্যমে সেটা পরিচালনা করে তাই সরাসরি তেমন ব্যবস্থা নেয়ার এখতিয়ার আমাদের হাতে থাকে না।"

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে কয়েক মাস আগে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুল আলম বহদ্দারহাট কাঁচা বাজারে মাছ বিক্রেতাদের অনিয়মের প্রতিবাদ করায় দোকানী ও ইজারাদাররা তার সাথেও খারাপ আচরণ করে। সেদিনের ঘটনার সত্যতা জানতে চাইলে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর আশরাফুল আলম অবশ্য সেটা স্বীকার করেন। পরে ইজারাদার সহ অন্যান্যরা ক্ষমা চেয়ে বিষয়টি মিমাংসা করেছে বলেও জানান তিনি। 

তবে বিষয়টি অস্বীকার করেছে ইজাদার বদিউল আলম। ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কোন মুরগি বিক্রি হয়নি বলে জানান। তবে প্রতিবেদকের হাতে থাকা তথ্যগুলো উল্লেখ করলে তিনি বলেন, সে সময় আমরা নামাজে ছিলাম। ইজারাদারের দাবি আজকে মুরগি কেনা সংক্রান্ত কোন ঘটনা নয়। তার দাবি আগের ঘটনার রেশ ধরে জাবেদের নেতৃত্বে আজ এসব করা হয়েছে।

এদিকে আজ বহদ্দারহাট বাজারে মুরগির ওজন কারচুপি সংক্রান্ত কোন ঘটনাই ঘটেনি বলে জানান চান্দগাঁও থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি বলেন, আমার কাছে আজ তেমন কিছু ঘটেছে বলে তথ্য জানা নেই। বিষয়টা পূর্বের ঘটনা সংক্রান্ত হতে পারে।

বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসি চসিক মেয়রের বাসায় অভিযোগ জানাতে গেলে থানার পুলিশ অফিসার মফিজ সবাইকে ভিডিও করে এবং জনপ্রতি ৪-৫টা করে মামলার আসামি করা হবে মর্মে হুমকির বিষয়ে ওসি মোস্তাফিজুর রহমান কিছুই জানেন না বলে জানান। একজন অফিসার এমন কথা বলতে পারেন কিনা জানতে চাইলে বিষয়টি তিনি তদন্ত করে দেখবেন বলে জানান। 

এদিকে ঘটনার তথ্য অনুসন্ধান করতে এসে বেশ কিছু অভিযোগ ও চাঞ্চল্যকর তথ্য এসেছে। যা আগামী পর্বে প্রকাশিত হবে।

বাবু/প্রিন্স

 

এ জাতীয় আরো খবর

এখনও হাসপাতালবিহীন উপজেলা ‘রাঙ্গাবালী’!

এখনও হাসপাতালবিহীন উপজেলা ‘রাঙ্গাবালী’!

স্কটল্যান্ডকে হারিয়ে আরও একধাপ এগিয়ে গেলো নিউজিল্যান্ড

স্কটল্যান্ডকে হারিয়ে আরও একধাপ এগিয়ে গেলো নিউজিল্যান্ড

চট্টগ্রামে চাঁদার টাকাসহ র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার ৫

চট্টগ্রামে চাঁদার টাকাসহ র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার ৫

পরী-সাকলায়েনের ভিডিও ভাইরাল (ভিডিও)

পরী-সাকলায়েনের ভিডিও ভাইরাল (ভিডিও)

নগরীতে বেপরোয়া ব্যাটারি চালিত রিকশা; হরহামেশাই ঘটছে দুর্ঘটনা

নগরীতে বেপরোয়া ব্যাটারি চালিত রিকশা; হরহামেশাই ঘটছে দুর্ঘটনা

মুনিয়া হত্যায় নতুন মোড়; অভিযোগকারীই এখন অভিযুক্ত

মুনিয়া হত্যায় নতুন মোড়; অভিযোগকারীই এখন অভিযুক্ত